স্পোর্টস ডেস্ক, ৪ অক্টোবর : দুই ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ২০ রানে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। পাকিস্তানের দেয়া ২১৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান সংগ্রহ করে সালামরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রুমানা আহমেদ করেন ৭০ রান। সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ওয়ানডে মঙ্গলবার।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশ নারী দলের বিপক্ষে ২১৪ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান নারী দল। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ বিসমাহ মারুফ ৯২ রান সংগ্রহ করে। বাংলাদেশ নারী দলের পক্ষে সালমা খাতুন নেন ৩টি উইকেট।

রবিবার করাচির সাউথ এন্ড ক্লাব ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয়।

এ ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিং করেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। অধিনায়ক সালমা নিজেই তিন উইকেট নিয়ে পাকিস্তান দলে ধস নামান। ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩১ রান দিয়ে তিনি তুলে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

খাদিজা-কুল-কোবরা, ফাহিমা খাতুন আর নাহিদা আকতার-প্রত্যেকেরই ঝুলিতে গেছে একটি করে উইকেট।

ব্যাট হাতেও ব্যাটারদের পারফরম্যান্সের ওপর নির্ভরশীল অনেক কিছুই। সফরের প্রথম দুটো টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বোলিং ভালো হলেও ব্যাটসম্যানদের কারণেই কিন্তু ম্যাচ দুটো জেতা হয়নি বাংলাদেশের।

ওয়ানডেতে এর আগে চারবার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। হারজিত দুই দিকেই সমান। দুটি ওয়ানডে জিতেছে বাংলাদেশের মেয়েরা, দুটি পাকিস্তান। আজকের জয়ে এগিয়ে রইলো পাকিস্তান।

মেয়েদের প্রথম পাকিস্তান সফরে দুটি টি-টোয়েন্টিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। জয়ের মধ্যে থাকায় প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিক মেয়েরা ফেবারিট থাকবে স্বাভাবিক। তা ছাড়া বাংলাদেশের বিপক্ষে আগের চারটি ওয়ানডের তুলনায় এই ম্যাচটি একটু ব্যতিক্রমও সানা মীরের দলের জন্য। বাংলাদেশের বিপক্ষে এবারই যে প্রথম নিজেদের মাটিতে খেলছে তারা!

দুই দলের আগের চার ওয়ানডের প্রথম দুটি হয়েছিল ডাবলিনে। ওই দুই ম্যাচেই জিতেছিল পাকিস্তান। সর্বশেষ গত বছর পাকিস্তানের মেয়েদের বাংলাদেশ সফরে কক্সবাজারে হওয়া দুটি ম্যাচে জেতে বাংলাদেশের মেয়েরা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *