Search
Saturday 2 July 2022
  • :
  • :

সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকিতে বাংলাদেশ ২৩ নম্বরে

সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকিতে বাংলাদেশ ২৩ নম্বরে

ঢাকা, ১ অক্টোবর : আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা ‘ইনস্টিটিউট ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড পিসের (আইআইপি)’ বার্ষিক প্রতিবেদনের সঙ্গে প্রকাশিত বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ সূচক-২০১৪ অনুযায়ী, ১৬২টি দেশের তালিকায় ৫ দশমিক ২ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ২৩ নম্বরে। তালিকার শীর্ষে রয়েছে ইরাক। ২০১৩ সালে জঙ্গি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে দেশটিতে ৬ হাজার ৩৬২ জন নিহত হয়েছে। তালিকায় ইরাকের পরই রয়েছে আফগানিস্তান, পাকিস্তান, নাইজেরিয়া, সিরিয়া ও ভারত। ওই প্রতিবেদনে ৩০ নম্বরে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১২ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে বিশ্বে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পায়। ২০১৩ সালে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতের হার আগের বছরের তুলনায় ৬১ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যায়। ‘গ্লোবাল টেরোরিজম ইনডেক্স (জিটিআই) ২০১৪’ অনুযায়ী, ২০১৩ সালে বিশ্বজুড়ে প্রায় ১০ হাজার সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। ২০১২ সালের তুলনায় তা ৪৪ শতাংশ বেশি।

আইআইপি’র পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৩ সালে সন্ত্রাসী হামলায় প্রায় ১৮ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যুদ্ধ নেই এমন কয়েকটি দেশ রয়েছে যারা সন্ত্রাসবাদের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। দেশগুলো হলো- অ্যাঙ্গোলা, বাংলাদেশ, বুরুন্ডি, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক, আইভরি কোস্ট, ইথিওপিয়া, ইরান, ইসরাইল, মালি, মেক্সিকো, মিয়ানমার, শ্রীলঙ্কা ও উগান্ডা।

অধিকাংশ প্রাণহানির জন্য দায়ী জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটস (আইএস), আল-কায়েদা, বোকো হারাম ও তালেবান। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সহিংস কর্মকাণ্ডের তুলনামূলক মানদণ্ডকে নির্দেশক ধরে সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকিতে থাকা এই দেশগুলোর তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশের ২৩ নম্বরে অবস্থান নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, এটা সঠিক হতে পারে না। কেননা বাংলাদেশে সন্ত্রাস কিংবা জঙ্গিবাদী গোষ্ঠী মাথাচাড়া দিয়ে উঠার আগেই নির্মূল করা হয়েছে। তবে কোন কোন মহল বাংলাদেশকে সন্ত্রাসী এবং জঙ্গিবাদী দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে তত্পর রয়েছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর সহিংসতা ঘটলে সেসব সহিংসতার ৫১১টি ফুটেজ বিদেশিদের কাছে সরবরাহ করে একটি মহল। বিষয়টি গোয়েন্দাদের নজরে আসে। মতিঝিলে হেফাজতের কর্মকাণ্ডের ফুটেজও নেতিবাচকভাবে বিদেশিদের কাছে উপস্থাপন করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেশের ৩ শীর্ষ গোয়েন্দা কর্মকর্তা সন্ত্রাসবাদ প্রসঙ্গে এ প্রতিবেদককে বলেন, বাংলাদেশে ইতালীয় নাগরিক হত্যাকাণ্ড নিয়ে বলা যাবে না যে বাংলাদেশ সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকিতে আছে। যুক্তরাষ্ট্রেও এমন হামলা হয়। তবে বাংলাদেশে বিদেশি নাগরিক খুন হওয়ার ঘটনা নিয়ে একটি মহলের তত্পরতা রহস্যজনক। এই ঘটনায় ওই মহলের জড়িত থাকার বিষয়টিও উড়িয়ে দেয়া যায় না।

পুলিশের ভারপ্রাপ্ত আইজিপি মোখলেসুর রহমান এ প্রসঙ্গে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে একটি বিশেষ মহল বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র বানানোর চেষ্টা করছে।

র্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ এ প্রসঙ্গে বলেন, সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করা হচ্ছে। অপরাধীদের পার পাওয়ার সুযোগ নেই। সূত্র : ইত্তেফাক




Leave a Reply

Your email address will not be published.