Search
Saturday 2 July 2022
  • :
  • :

ম্যাক্সওয়েলের অবিশ্বাস্য ক্যাচ!

ম্যাক্সওয়েলের অবিশ্বাস্য ক্যাচ!

স্পোর্টস ডেস্ক, ১২ সেপ্টেম্বর : এ বছরের শুরুতে বিগ ব্যাশ লিগে বাউন্ডারি লাইনে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে অসাধারণভাবে তালুবন্দি করেছিলেন জস লালোর। বাউন্ডারি লাইন অতিক্রম করে ক্যাচ ধরা হয়েছিল বলে সেটার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন ম্যাক্সওয়েল। পরে অবশ্য বুঝতে পেরেছিলেন নিজের ভুল। সংকল্প করেছিলেন নিজেও তেমন একটা ক্যাচ ধরার। সেটা যে এত দ্রুত বাস্তব হয়ে যাবে, তা হয়তো ম্যাক্সওয়েল নিজেও ভাবেননি। শুক্রবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চতুর্থ ওয়ানডেতে অবিশ্বাস্য এক ক্যাচ ধরে ক্রিকেটবিশ্বে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন এই অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার।

জয়ের জন্য ৩০০ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করছিল ইংল্যান্ড। ৪৬তম ওভারে প্যাট কামিন্সের বল উড়িয়ে মেরেছিলেন লিয়াম প্লাঙ্কেট। নিশ্চিতভাবেই বলটা চলে যেত বাউন্ডারির বাইরে যদি না বাঁধ সাধতেন ম্যাক্সওয়েল। পেছনে সরতে সরতে বাউন্ডারি লাইনের একেবারে শেষপ্রান্তে বলটা তালুবন্দি করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার এই ক্রিকেটার। তবে বলটা ধরতে পারলেও তাল সামলাতে না পেরে চলে গিয়েছিলেন বাউন্ডারি লাইনের বাইরে। তবে তার আগে দুর্দান্তভাবে বলটা ভাসিয়ে দিয়েছিলেন হাওয়ায়। ফিরতি বলটা বামহাত দিয়ে লুফেও নিয়েছেন অসাধারণ দক্ষতায়। পুরো কাজটাই ম্যাক্সওয়েল করেছেন কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। থার্ড আম্পায়ার বেশ কয়েকবার রিপ্লে দেখার পর শেষপর্যন্ত দিয়েছেন আউটের নির্দেশ।

ক্রিকেটের আদি নিয়ম অনুযায়ী বল বাউন্ডারি লাইনের বাইরে চলে গেলে সেটা ছয় হিসেবেই বিবেচিত হতো। ম্যাক্সওয়েলের মতো ক্যাচ ধরলেও সেটা আউট বলে গণ্য হতো না। কিন্তু ২০১৩ সালের অক্টোবরে পরিবর্তন করা হয় নিয়মটি। নতুন নিয়ম অনুযায়ী বল বাউন্ডারি লাইনের বাইরে গেলেও ফিল্ডার যদি বাউন্ডারি লাইনের বাইরে পা না ঠেকিয়ে ক্যাচ ধরতে পারেন, তাহলে সেটা আউট বলেই বিবেচিত হবে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট শুরুর পর বাউন্ডারি লাইনে এমন ক্যাচ অনেকই দেখা যায়। বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগগুলোতে এ ধরনের দুর্দান্ত ক্যাচ আগেও ধরতে দেখা গেছে কাউকে কাউকে। তবে ম্যাক্সওয়েলের এই ক্যাচটা হয়তো আলাদাভাবেই স্মরণীয় হয়ে থাকবে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে।

ম্যাক্সওয়েলের এই ক্যাচ অবশ্য জয় এনে দিতে পারেনি অস্ট্রেলিয়াকে। ৩০০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১০ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড। অধিনায়ক ওয়েন মরগান ৯২ বলে ৯২ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলের জয়ের নেতৃত্ব দিয়েছেন সামনে থেকে। ম্যাচসেরার পুরস্কারও উঠেছে তাঁর হাতে। এই ম্যাচ জিতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-২ ব্যবধানে সমতা ফিরিয়েছে ইংল্যান্ড।

সোমবার সিরিজের পঞ্চম ম্যাচটিই তাই হয়ে গেছে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ।




Leave a Reply

Your email address will not be published.