ঢাকা, ৪ অক্টোবর : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগের অর্জন প্রশ্নবিদ্ধ করতে দেশে-বিদেশে অনেক ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। এরই একটি অংশ বিদেশি নাগরিক হত্যার ঘটনা। তিনি বলেন, দুই বিদেশি হত্যায় জড়িতদের খুঁজে বের করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। খুনিদের ধরাও হবে, বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

জাতিসংঘের অধিবেশনে বাংলাদেশের অবস্থান নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। আজ রোববার বেলা ১১.৩৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রী তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, দেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে, এর কিছু পাল্টা প্রতিক্রিয়া তো হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭০ তম সাধারণ অধিবেশনে যোগদান বৈশ্বিক অঙ্গণে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল করেছে।

তিনি বলেন, এ অধিবেশনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বাংলাদেশের ভূমিকা যথেষ্ট ছিল। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। চিনের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, আগামী নভেম্বরে নেদারল্যান্ডস সফর করবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী প্রশ্নোত্তর পর্বের শুরুতে বলেন, বিদেশি দুই নাগরিক হত্যার স্টাইল একই রকম, সুপরিকল্পিত। এই দুই বিদেশি হত্যায় জড়িতদের খুঁজে বের করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। খুনিদের ধরাও হবে, বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

এ সময় বিদেশে বাংলাদেশি নাগরিক হত্যার কথা উল্লেখ করেন তিনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী লীগের নেতা খুন হওয়ার কথা উল্লেখ করেন।

এ সরকারের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকারের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন থাকলে বিশ্বনেতারাও এ নিয়ে প্রশ্ন তুলত, আমাকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানাত না। আর এতাে বেশি অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে যে সেখানে আমার একার পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করা সম্ভব হয়নি। তাই আমরা ভাগ করে নিয়েছিলাম কে কোন অনুষ্ঠানে প্রতিনিধিত্ব করবেন।

তিনি বলেন, বিশ্ব​ নেতাদের কাছে সংকট নেই, সংকট এখানে কিছু মানুষের মনের মধ্যে। বিশ্ব​ নেতারা বাংলাদেশের রাজনৈতিক সংকট বা নির্বাচন নিয়ে কিছু বলেনি বরং দেশের উন্নয়ন নিয়ে কথা বলেছেন বলে জানান তিনি।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী জানান, সরকার উৎ​খাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের মানুষ পুড়িয়ে মারাটা বিশ্বনেতারা ভালোভাবে নেয়নি।

অপর এক প্রশ্নোত্তরে প্রধানমন্ত্রী পয়লা বৈশাখে গণমাধ্যমের কর্মীদের উৎ​সব বোনাস দিতে মালিকদের প্রতি আহ্বান।

প্রধানমন্ত্রী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমার শেকড় আমার দল।

এ সময় মন্ত্রী পরিষদের সিনিয়র সদস্যরাসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *