Search
Saturday 2 July 2022
  • :
  • :

বাংলাদেশকে হারানো এত সোজা নয়!

বাংলাদেশকে হারানো এত সোজা নয়!

স্পোর্টস ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ সফরে আসার আগে স্টুয়ার্ট লকে পরামর্শক নিয়োগ করলে খুব ভালো করত ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের যে উন্নতি, সেটার শুরুটা যে ল’র হাত দিয়েই হয়েছিল, সেটা অস্বীকার করার কোনো উপায়ই নেই। বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ হিসেবে চাকরিটা বেশি দিন করা হয়নি ল’র। কিন্তু অল্প সময়ের চাকরিতে একটি বিষয় খুব ভালো করেই বুঝে গিয়েছিলেন তিনি—ক্রিকেটে খুব দ্রুতই উঠে আসছে বাংলাদেশ। এই মুহূর্তে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল নিয়ে কাজ করা সাবেক এই অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার সেই অভিজ্ঞতা থেকেই সাবধান করে দিয়েছেন স্টিভেন স্মিথকে। বলেছেন, ‘সহজ একটি সফরের প্রত্যাশা নিয়ে বাংলাদেশে গেলে অস্ট্রেলীয় দলকে খুব বড় ধাক্কার সম্মুখীন হতে হবে।’

এ বছরটা যেকোনো বিচারেই বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত সেরা বছর হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপের শেষ আটে খেলা থেকে শুরু। ঘরের মাঠে পাকিস্তানকে ওয়ানডে সিরিজে ধবলধোলাই করার সুখস্মৃতির রেশ কাটতে না কাটতেই পরপর দুই সিরিজে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো পরাশক্তিকে হারানো। ওয়ানডে আর টেস্ট সম্পূর্ণ আলাদা ব্যাপার হলেও অস্ট্রেলিয়ার নতুন চেহারার দলটি বাংলাদেশে এসে যে কড়া চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে যাচ্ছে, সেটা খুব ভালো করেই জানেন ল।

বাংলাদেশ দলের সাম্প্রতিক উন্নতির ব্যাপারটা মাথায় রেখেই স্টিভেন স্মিথের দলকে আগেভাগেই সতর্ক করেছেন তিনি, ‘বাংলাদেশ সম্প্রতি যে ধরনের ক্রিকেট খেলছে, তার সবটা নয়, কিছু অংশও যদি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলে ফেলে, তাহলে নিশ্চিত করেই বলা যায়, বাংলাদেশ সফরে ভীতিকর অবস্থার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। কেউ যদি মনে করে বাংলাদেশে গিয়ে খুব সহজেই বাংলাদেশকে হারানো যাবে, তাহলে সে বোকার স্বর্গে বাস করছে। সবারই মনে রাখা উচিত, বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট চ্যালেঞ্জ গ্রহণে খুব ভালোভাবেই প্রস্তুত হয়ে আছে।’

বাংলাদেশ সফরের জন্য ঘোষিত অস্ট্রেলিয়া দলটি একেবারেই নতুন চেহারার। অ্যাশেজ সফরের ব্যর্থতার পর অবসরে গেছেন মাইকেল ক্লার্ক, ব্র্যাড হাডিন, ক্রিস রজার্স ও শেন ওয়াটসন। ক্লার্কের বদলে এই প্রথমবারের মতো স্থায়ী অধিনায়ক হিসেবে টেস্ট ম্যাচে নামবেন স্টিভেন স্মিথ। দলটিতে নতুন ও অনভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের আধিক্য। অস্ট্রেলিয়ার এই ‘পুনর্গঠন প্রক্রিয়া’র সুযোগ যে বাংলাদেশ খুব ভালোভাবে নেবে, সেটা যেন দিব্যদৃষ্টিতেই দেখতে পাচ্ছেন দেশের হয়ে ৫৪টি ওয়ানডে খেলা এই সাবেক ব্যাটসম্যান, ‘এই দলটিতে অভিজ্ঞতার বড্ড অভাব। অ্যাশেজ সিরিজের পর অভিজ্ঞতাই অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান দলটির সবচেয়ে বড় সমস্যা।’

বাংলাদেশের আবহাওয়াও অস্ট্রেলিয়া দলকে সমস্যায় ফেলবে বলে মনে করেন ল, ‘বাংলাদেশে গরম আবহাওয়ার ব্যাপারটি একটি সমস্যা। সেখানে টার্নিং উইকেটে খেলতে হবে দলকে। সবচেয়ে বড় কথা বাংলাদেশে গিয়ে সেখানকার পরিবেশ ও জীবনযাত্রার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়াটা হবে অস্ট্রেলিয়ার এই তরুণ দলটির জন্য বিরাট এক চ্যালেঞ্জ।’ সূত্র: এএফপি।




Leave a Reply

Your email address will not be published.