স্পোর্টস ডেস্ক :  পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত দুর্দান্ত জয় নিয়ে কোর্ট ছাড়লেন তিনি। ইউএস ওপনের তৃতীয় রাউন্ডে বেথাইন ম্যাটেক-স্যান্ডসের বিপক্ষে ৩-৬ গেমে পিছিয়ে পড়েন সেরেনা।

কিন্তু পরের দুই সেটে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ান বিশ্বের এক নম্বর এ তারকা। শেষ পর্যন্ত স্বদেশি খেলোয়াড় বেথাইনকে ৩-৬, ৭-৫, ৬-০ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কৃষ্ণকলি। এতে ১৯৮৮ সালের পর প্রথম টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে ক্যারিয়ার গ্রান্ড স্লাম জয়ের পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলেন এ ৩৩ বছর বয়সী।

এ বছর তিনি গ্রান্ড স্লামের তিন আসর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, ফেঞ্চ ওপেন ও উইম্বনের শিরোপা জিতেছেন। বছরের চতুর্থ ও শেষ গ্রান্ড স্লাম জিতলে তিনি ইতিহাসের আরেকটি পাতা দখল করবেন। সর্বশেষ ১৯৮৮ সালে এক বছরের চারটি গ্রান্ড স্লাম জেতার রেকর্ড আছে স্টাফি গ্রাফের।

র‌্যাঙ্কিংয়ের ১০১ নম্বরে তাকা বেথাইনকে হারিয়ে সেরেনা বলেন, ‘আমি অনেক শক্তিশালী একজন খেলোয়াড়ের বিপক্ষে খেলেছি। সত্যিই বেথাইন অনেক ভাল খেলেছে।’

২১ গ্রান্ড স্লাম শিরোপাজয়ী সেরেনা গত বছর উইম্বলডন থেকে এ পর্যন্ত গ্রান্ড সøামে টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত। আর ইউএস ওপেনে ৬ বারের শিরোপাজয়ী এ তারকা সর্বশেষ তিনবারের চ্যাম্পিয়ন। ২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টে তিনি ২৪ ম্যাচ অপরাজিত।

আর সব মিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো হার্ড কোর্টে ৪৭ ম্যাচ অপরাজিত তিনি। এছাড়া এ বছর ৫৩ ম্যাচ মাত্র দুইবার হেরেছেন ৩৩ বছর বয়সী সেরেনা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *