Search
Tuesday 22 June 2021
  • :
  • :

দুই দিনেই ভূতুরে টেস্ট জিতল ভারত

দুই দিনেই ভূতুরে টেস্ট জিতল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৬ ফেব্রুয়ারি : বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়ামে টেস্ট। তাও আবার গোলাপী বলে, দিবা রাত্রির। মুখোমুখি ভারত ও ইংল্যান্ড। আহমেদাবাদে জমজমাট লড়াই হবে। টেস্টের পঞ্চম দিনেও থাকবে রাজ্যের রোমাঞ্চ। এমনটিই চাওয়া ছিল ভক্তদের। কিন্তু আহমেদাবাদ টেস্টে যা ঘটলো তা রীতিমতো ভূতুরেই বলা চলে। মাত্র দুই দিনেই শেষ হয়েছে এই টেস্ট। ভারত জিতেছে ১০ উইকেটে। পড়ে থাকল তিন দিন, কিন্তু বাজে উইকেট নিয়ে শুরু হয়ে গেছে সমালোচনা।

স্পিনারদের দাপটেই বলতে গেলে আহমেদাবাদ টেস্ট মুখ থুবড়ে পড়ল দুই দিনেই। প্রথম দিনে টস জিতে ইংল্যান্ড অল আউট ১১২ রানে। জবাবে বৃহস্পতিবার ভারত অল আউট ১৪৫ রানে। একই দিনে দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৮১ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। জয়ের জন্য ভারতের দরকার পড়ে মাত্র ৪৯ রান। ভারত এমন লক্ষ্য ছুয়ে ফেলে বিনা উইকেটে, মাত্র ৭.৪ ওভারে।

উইকেট যেখানে স্পিন জুজুতে কাঁপছে সেখানে ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও সুবমান গিল ওয়ানডে স্টাইলে খেললেন। রোহিত ২৫ ও গিল ১৫ রানে ছিলেন অপরাজিত।

দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন বেন স্টোকস। অধিনায়ক রুট করেন ১৯। ১২ রান আসে পোপের ব্যাট থেকে। চার ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন রানের খাতা খোলার আগেই। বাকি চার ব্যাটসম্যান ছুতে পারেননি দুই অঙ্কের রান। বল হাতে ভারতের হয়ে অক্ষর প্যাটেল নেন ৫ উইকেট। অশি^ন নেন চারটি। ওয়াশিংটন সুন্দর নেন একটি উইকেট।

এর আগে ভারত অল আউট ১৪৫ রানে। বুধবার প্রথম দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ ছিল ৩ উইকেটে ৯৯ রান। ক্রিজে অপরাজিত ছিলেন রোহিত শর্মা (৫৭) অজিঙ্কা রাহানে (১)।

দিনের শুরু থেকেই পড়তে থাকে ভারতের উইকেট। দাঁড়াতে পারেননি কেউ। রোহিত শর্মা ও অজিঙ্কা রাহানেকে বিদায় করেন লিচ। এরপর চলে পার্ট টাইম বোলার রুটের চমক। মিডল অর্ডারের চার ব্যাটসম্যানকে তিনি আউট করেন। বুমরাহর শেষ উইকেটটিও নেন রুট। আর তাতেই অল আউট ভারত।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৬ রান করেন ওপেনার রোহিত শর্মা। ৯৬ বলের ইনিংসে তিনি হাকিয়েছেন ১১টি চার। নেই কোন ছক্কা। আগের দিন আউট হওয়া অধিনায়ক বিরাট কোহলি করেন ২৭ রান।

রুট তোপে ওয়াশিংটন সুন্দর ও অক্ষর প্যাটেলতো রানের খাতাই খুলতে পারেননি। সেই হিসেবে ভালোই করেছেন পেসার ইশান্ত শর্মা। ২০ বলে ১০ রানে তিনি থাকেন অপরাজিত।

রুটের বোলিং ফিগার দুর্দান্ত। ৬.২ ওভারে তিনটি মেডেন নিয়েছেন। রান দিয়েছেন মাত্র ৮। উইকেট ৫টি। যা তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। এর আগের সেরা বোলিং ছিল ৮৭ রানে চার উইকেট। জ্যাক লিচ চারটি ও জফরা আরচার নেন একটি উইকেট।

ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেও মুখটা ভার ইংলিশ অধিনায়ক জো রুটের। দুই দিনেই তার দল এমনভাবে আত্মসমর্ণন করবেন, তা ঘুনাক্ষরে ভাবেনি কেউ। দুই ইনিংসে মোট ১১ উইকেট নেয়ার সুবাদে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন ভারতের স্পিনার অক্ষর প্যাটেল।

চার ম্যাচ সিরিজে ভারত এগিয়ে গেল ২-১ ব্যবধানে। আগামী ৪ মার্চ থেকে আহমেদাবাদের এই ভেন্যুতেই শুরু হবে সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্ট।