স্পোর্টস ডেস্ক, ৫ অক্টোবর : গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার শাহাদাত হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ইউসুফ হোসেন এ আদেশ দেন। এর আগে সকালে ঢাকার সিএমএম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন জাতীয় ক্রিকেট দল থেকে সাময়িক বহিষ্কৃত এ খেলোয়াড়। শুনানি শেষে বিচারক শাহাদাতের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে রবিবার ভোরে ঢাকার মালিবাগে শ্বশুর বাড়ি থেকে শাহাদাত হোসেনের স্ত্রী জেসমিন জাহানকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আদালতে হাজির করে জেসমিন জাহান নিত্যের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মিরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুর রহমান। অন্যদিকে নিত্য শাহাদাতের জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী কাজী নজিবুল্লাহ হিরু। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম ইউনুস খানের আদালত তার রিমান্ড ও জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান। একই সঙ্গে তিন কার্যদিবসের মধ্যে তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন বিচারক।

উল্লেখ্য, গত ৬ সেপ্টেম্বর রাতে রাজধানীর কালশী থেকে শাহাদাতের গৃহকর্মী মাহফুজা আক্তার হ্যাপিকে (১১) উদ্ধার করে পুলিশ। হ্যাপি পুলিশের কাছে দেয়া তার জবানবন্দিতে শাহাদাত ও তার স্ত্রীর নির্যাতনের কথা বলে। ওই রাতেই মিরপুর মডেল থানায় শাহাদাত দম্পতির বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন সাংবাদিক খন্দকার মোজাম্মেল হক।

হ্যাপিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসা দেওয়া হয়। তার শরীরের অধিকাংশ স্থানে গুরুতর জখম ও ফুলে যাওয়ার চিহ্ন ছিল। আঘাতের চিহ্ন ছিল দুই চোখেও। এ ছাড়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছ্যাঁকার দাগ রয়েছে। গত ১৩ সেপ্টেম্বর হ্যাপি ঢাকার সিএমএম আাদলতে তার ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দেয়। গত ৮ সেপ্টেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে নির্যাতনকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছিল গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্ক ও শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরাম।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *