Search
Monday 29 November 2021
  • :
  • :
সর্বশেষ

১০৮ রানে টাইগারদের আটকে দিল পাকিস্তান

১০৮ রানে টাইগারদের আটকে দিল পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক, ২০ নভেম্বর : পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে বাংলাদেশ সংগ্রহ করেছে মাত্র ১০৮ রান। এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সফররত পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই ওপেনার সাইফ হাসানকে হারায় বাংলাদেশ। দলীয় স্কোরবোর্ডে এক রান যোগ হতেই স্ট্রাইক প্রান্তে যান সাইফ হাসান। আর প্রথম বলেই এলবিডাব্লিউ হয়ে ফেরেন সাইফ। পরের ওভারে ফখর জামানের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন আরেক ওপেনার নাঈম শেখ। সাইফ কোনো রান করতে না পারলেও নাঈম রানের খাতায় যোগ হয় একটি রান। এতেই ৫ রানে দুই ওপেনারকে হারায় বাংলাদেশ।

দুই উইকেট হারিয়ে প্রাথমিক চাপে পড়ে। এরপর দলের হাল ধরার চেষ্টায় তখন নাজমুল হোসেন শান্ত এবং আফিফ হোসেন।

তৃতীয় উইকেটে আফিফ হোসেন এবং নাজমুল হোসেন শান্ত মিলে ৪৬ রানের দুর্দান্ত এক জুটি গড়ে বড় সংগ্রহের আশা দেখালেও নবম ওভারের প্রথম বলে আফিফ রিভার্স সুইপ করতে গেলে ব্যাটের মাথায় লেগে ক্যাচ উঠলে তা সহজেই ধরে ফেলেন উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ রিজওয়ান। আউট হওয়ার আগে ২১ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ২০ রান করেন আফিফ।

এরপর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন শান্ত। তবে দলীয় ৭৯ রানের মাথায় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ব্যক্তিগত ১২ রান করে রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন। এতে আবারও চাপে পড়ে স্বাগতিকরা। বাকিরা আসা যাওয়ার মিছিলে থাকলেও উইকেটের এক প্রান্তে খুটি গেড়েছিলেন শান্ত। তবে অধিনায়ক ফেরার পরের ওভারে ৪০ রান করে তিনি বোলার শাদাব খানের হাতেই ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন। এতেই ৮২ রানে ৫ম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ১০৮ রান। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান আসে নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে। তার ব্যাট থেকে আসে ৪০ রান। এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০ রান করেন আফিফ হোসেন। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ করেন ১২।

এ ম্যাচে পাকিস্তান একাদশে এসেছে এক পরিবর্তন। উইনিং কম্বিনেশন বদলে হাসান আলীর পরিবর্তে ম্যাচ খেলছেন শাহিন আফ্রিদি। বাংলাদেশ দলে কোনো পরিবর্তন নেই।

বাংলাদেশ একাদশ
নাঈম শেখ, সাইফ হাসান, নাজমুল শান্ত, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নুরুল হাসান সোহান, আফিফ হোসেন, মেহেদী হাসান, তাসকিন আহমেদ, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, শরীফুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

পাকিস্তান একাদশ
বাবর আজম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফখর জামান, হায়দার আলি, শোয়েব মালিক, খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ নাওয়াজ, শাদাব খান, শাহিন আফ্রিদি, হ্যারিস রউফ ও মোহাম্মদ ওয়াসিম।