হবিগঞ্জ, ৩ অক্টোবর : হবিগঞ্জে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে ৫ জন নিহত ও অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার জালালপুর নামক স্থানে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতদের মধ্যে রয়েছেন- জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক মোস্তাক আহমদ পলাশের স্ত্রী মুর্শেদা বেগম (৪০) ও সেনা কর্মকর্তা আবু সালেহ। তবে ঘটনাস্থলে নিহত তিনজনের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

শেরপুর হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ুন কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঢাকা থেকে সিলেটগামী হানিফ পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৮৩১৯) যাত্রীবাহী একটি বাস আউশকান্দি-শেরপুর এলাকার মধ্যবর্তীস্থান জালালপুর এলাকায় পৌঁছে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাককে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। ধাক্কা দিয়ে বাসটির অর্ধেক অংশ খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের একজন নারীসহ তিন যাত্রীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন আহত হন।

গুরুতর আহত অবস্থায় আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাক আহমদ, তাঁর স্ত্রী মুর্শেদা বেগম, মেয়ে মীম, কাজের মেয়ে মনোয়ারা বেগম ও সেনা কর্মকর্তা আবু সালেহকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে আসার পর অন্তঃসত্ত্বা মুর্শেদা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। পরে চিকিৎধীন অবস্থায় মারা যান সেনা কর্মকর্তা আবু সালেহ। হতাহতদের সবাই হানিফ পরিবহনের যাত্রী।

ঘটনাস্থলে নিহত ৩ জনের লাশ উদ্ধার করে শেরপুর হাইওয়ে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও অন্যদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান এসআই হুমায়ুন কবীর।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *