Search
Thursday 19 May 2022
  • :
  • :

সুন্দরবন রক্ষায় লং মার্চে পুলিশের লাঠিপেটা

সুন্দরবন রক্ষায় লং মার্চে পুলিশের লাঠিপেটা

মানিকগঞ্জ, ১৬ অক্টোবর : সুন্দরবন রক্ষায় গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার লং মার্চের অংশ হিসেবে মানিকগঞ্জে সমাবেশ ও মিছিলের চেষ্টাকালে পুলিশের লাঠিপেটা। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে মানিকগঞ্জ সদরে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার সমন্বয়ক সাইফুল হকসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সুন্দরবনের পাশে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবিতে আজ শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে যাত্রা শুরু করে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা।

বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে মানিকগঞ্জ শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে উপস্থিত হতে থাকেন রোডমার্চে অংশগ্রহণকারী কর্মীরা। কর্মীরা জানান, পুলিশ এসে এখানে (স্মৃতিস্তম্ভে) জড়ো হতে নিষেধ করে।

একই সঙ্গে কোনো ধরনের সমাবেশ ও মিছিল করতে নিষেধ করে। পরে মিছিলের প্রস্তুতি নিতেই পুলিশ এলোপাতাড়ি লাঠিপেটা করতে থাকে।

এ ব্যাপারে রোডমার্চে অংশগ্রহণকারী গণসংহতি আন্দোলনের পরিচালনা কমিটির সদস্য আরিফুল ইসলাম বলেন, এ স্থানে সমাবেশ করার জন্য গত ৯ অক্টোবর আমরা অনুমতি চেয়ে আবেদন করি।

পুলিশের পক্ষ থেকে আমাদের বলা হয় সমাবেশ করেন, সমস্যা নেই। পুলিশের সামনেই গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে মাইক লাগানোসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তখনো আমাদের বলা হয়নি যে আজ সমাবেশ করা যাবে না। আজ জড়ো হওয়ার পরই পুলিশ জানায়, এখানে সমাবেশ করা যাবে না। এরপর বলা হয় মিছিলও করা যাবে না। এ ব্যাপারে ওপর থেকে নির্দেশ আছে বলে আমাদের জানানো হয়। আমরা বলি, এখানে তো ১৪৪ ধারা জারি হয়নি। এরপর মিছিলের প্রস্তুতি নিতেই পুলিশ লাঠিচার্জ করতে থাকে।

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, স্মৃতিস্তম্ভে সমাবেশ করার পূর্ব অনুমতি ছিল না তাঁদের কাছে। এ কারণে পুলিশ সমাবেশ করতে বাধা দেয়। পুলিশের ওপর রোডমার্চের অংশগ্রহণকারীরাই প্রথমে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে বলে তিনি দাবি করেন।

রোডমার্চটি আগামী ১৮ অক্টোবর বাগেরহাটে সুন্দরবনের পাশে পৌঁছানোর কথা আছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published.