Search
Thursday 19 May 2022
  • :
  • :

‘শান্তিরক্ষায় বাংলাদেশ এখন একটি ব্রান্ড নেম’

‘শান্তিরক্ষায় বাংলাদেশ এখন একটি ব্রান্ড নেম’

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর : ঢাকায় সফররত জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল অতুল খারে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ভূমিকার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেছেন, শান্তিরক্ষায় বাংলাদেশ এখন একটি ‘ব্রান্ড নেম’।

সোমবার বিকালে জাতিসংঘ আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎকালে একথা বলেন।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহ্সানুল করিম সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় সুদূরপ্রসারী ভূমিকার জন্য জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পাওয়ায় জাতিসংঘ আন্ডার সেক্রেটারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

অতুল এমডিজি’র সাফল্য এবং সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বেও প্রশংসা করেন।

প্রেস সচিব আরো বলেন, তিনি শান্তিরক্ষীদের জন্য বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিচ সাপোর্ট অপারেশন ট্রেনিংয়ে ট্রেনিং কর্মসূচির প্রশংসা করে বলেন, জাতিসংঘ বাংলাদেশে দু’টি টিম পাঠাবে। এর মধ্যে একটি টিম আসবে জাতিসংঘের সঙ্গে ব্যবসা অনুসন্ধান এবং অপর দলটি আসবে জাতিসংঘ শান্তি মিশনে বেসামরিক লোকদের অংশগ্রহণ, বিশেষ করে নারীদের অংশগ্রহণের উপায় খুঁজে বের করতে।

জাতিসংঘ আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে বাংলাদেশ পুলিশ কন্টিনজেন্টের প্রশংসা করে বলেন, তারা কোন ধনী দেশ থেকে না আসলেও তারা সংস্কৃতি ও হৃদয়ে ধনী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব শান্তি রক্ষায় তাঁর প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীরা শুধুমাত্র শান্তিরক্ষী হিসেবে কাজ করছে না, সংশ্লিষ্ট দেশের অবকাঠামো উন্নয়নেও ভূমিকা রাখছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীরা যে কোন সংকট মুহূর্তেও সবকিছু ভালভাবে ম্যানেজ করে চলছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় শান্তিরক্ষীদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও যন্ত্রপাতি দেয়া হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে তিনি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রশ্নে দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বিপসোট প্রতিষ্ঠার উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশ প্রশিক্ষণের জন্য সুযোগ সৃষ্টি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি অঞ্চলের নারী শান্তিরক্ষীসহ বিপসোটের ট্রেনিং কর্মসূচির আয়োজন করতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান।

চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) লে. জেনারেল সাব্বির আহমেদ, পিএমও’র সচিব সুরাইয়া বেগম, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক কো-অডিনেটর রবার্ট ওয়াটসিন অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published.