স্পোর্টস ডেস্ক, ১ অক্টোবর : ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জোড়া গোলে মালমোকে ২-০ ব্যবধানে হারাল স্পেনের সফলতম ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘এ’ গ্রুপে এটি রাফায়েল বেনিতেসের দলের টানা দ্বিতীয় জয়।

প্রতিপক্ষের মাঠ সুইডব্যাংক স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় মিনিটেই গোলের প্রথম সুযোগটি তৈরি করে রিয়াল। আলগা বল পেয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নিয়ে সুযোগটি হাতছাড়া করেন ইসকো।

প্রতিযোগিতার দশবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের একের পর এক আক্রমণের মুখেও সুযোগ পেলে পাল্টা আক্রমণে যাচ্ছিল সুইডেনের ক্লাব মালামো। নবম মিনিটে দুইবার তারা পরীক্ষায় ফেলে রিয়ালের গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে; দুইবারই দলকে রক্ষা করেন তিনি।

রোনালদো-করিম বেনজেমার নৈপুণ্যে ষোড়শ মিনিটে এগিয়ে যায়ওয়ার ভালো সুযোগ আসে রিয়ালের সামনে। সেবার রোনালদোর শট ঠেকিয়ে দেন মালমো গোলরক্ষক ইয়োহান উইল্যান্ড। পরের মিনিটে সরাসরি গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে আরেকটি ভালো সুযোগ হাতছাড়া করেন রোনালদো।

অবশেষে ২৯তম মিনিটে উইল্যান্ডকে পরাস্ত করেন রোনালদো। ইসকোর কাছ থেকে বল পেয়ে নিচু শটে বল জালে পাঠিয়ে দলকে এগিয়ে নেন পর্তুগালের এই ফরোয়ার্ড। এটি তার সিনিয়র ক্যারিয়ারের পাঁচশতম গোল।

৪২তম মিনিটে ব্যবধান ২-০ করেই ফেলেছিলেন দানি কারভাহাল। দুরূহ কোন থেকে তার জোরালো ভলি গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও বারে লাগে।

দ্বিতীয়ার্ধে ৫১তম মিনিটে বেনজেমার নৈপুণ্যে সুযোগ পায় রিয়াল। ফরাসি স্ট্রাইকারের চমৎকার ক্রস ইসকো বুক দিয়ে নামিয়ে দেন মাতেও কোভাচিচকে। কিন্তু এই মিডফিল্ডারের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে পৌঁছায়নি।

দশ মিনিট পর আবার সুযোগ তৈরি করেন বেনজেমা। এবার ডি বক্সের ঠিক বাইরে তিনি খুঁজে পান টনি ক্রুসকে। জার্মান মিডফিল্ডারের শট এক জনের গায়ে লেগে আর লক্ষ্যে থাকেনি।
রিয়ালের আক্রমণ সামাল দেওয়ার ফাঁকে ৭৪তম মিনিটে সমতায় ফেরার সুযোগ তৈরি করে মালমো। মার্কুস রোসেনবার্গের হেড লক্ষ্যে না থাকায় প্রচেষ্টাটি ব্যর্থ হয়ে যায়।

৭৮তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে ভিক্তর ইয়োতুন মাঠ ছাড়লে মালমো ১০ জনের দলে পরিণত হয়। বাকি সময়টুকু নিজেদের রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত থাকতে হয় স্বাগতিকদের।

৮০ ও ৮৫তম মিনিটে দুইবার রোনালদোকে হতাশ করেন উইল্যান্ড। কিন্তু রোনালদোর রিয়াল কিংবদন্তি রাউল গনসালেসের পাশে বসা থামাতে পারেননি তিনি। ৮৯তম মিনিটে দ্বিতীয়বারের মতো জালে বল পাঠিয়ে রিয়ালের হয়ে রাউলের সর্বোচ্চ ৩২৩ গোলের রেকর্ড ভাগ বসান রোনালদো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *