Search
Saturday 23 March 2019
  • :
  • :

রংপুরের সাবেক মেয়র ঝন্টু আর নেই

রংপুরের সাবেক মেয়র ঝন্টু আর নেই

রংপুর, ২৬ ফেব্রুয়ারি : রংপুর সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু আর নেই (ইন্নালিল্লাহি…… রাজেউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে দীর্ঘ ২৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গতকাল বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন তিনি।

এর আগে গুরুত্বর অসুস্থ অবস্থায় ১লা ফেব্রুয়ারি এয়ার এ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এদিকে তার মৃত্যুর সংবাদ রংপুরে ছড়িয়ে পড়লে চারদিকে শোকের ছায়া নেমে আসে। রংপুর মহানগর জুড়ে আলোচনা শুরু হয়।

দলীয় নেতাকর্মীসহ শুভাকাঙ্ক্ষীরা তার বাসভবনে ভিড় জমায়। এ সময় একে অন্যকে জড়িয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু। এছাড়া তিনি রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, রংপুর-১ (গঙ্গাচড়া) আসন থেকে সংসদ সদস্য, রংপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এবং রংপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন।

২০১৭ সালের ২১শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত সিটি কর্পোরেশনের ২য় নির্বাচনে জাতীয় পার্টির (এ) প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন তিনি। ওদিকে সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টুর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. রেজাউল করিম রাজু, মহানগর সভাপতি সাফিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি আরশাদ হারুন, সাধারণ সম্পাদক নোমান চৌধুরী, সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত কাউন্সিলরসহ সর্বস্তরের রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

তার পারিবারিক সূত্র জানায়, সোমবার সকাল ১০টায় সংসদ ভবনে সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর হেলিকপ্টার যোগে লাশ রংপুরে আনা হবে। বাদ আসর পুলিশ লাইন স্কুল মাঠে জানাজা শেষে নুরপুর কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে।