Search
Tuesday 17 May 2022
  • :
  • :

যুবলীগের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

যুবলীগের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

ঢাকা : আজ ১১ নভেম্বর। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মূলধারা এবং আদর্শের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের এই দিনে ঢাকা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক যুব কনভেশনে সংগঠনটি গঠন করেন।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আদলে অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক ও শোষণমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে যুবসমাজকে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্য নিয়েই প্রতিষ্ঠিত হয় এই সংগঠন। গত চার দশকের বেশি সময় ধরে দীর্ঘ লড়াই-সংগ্রাম ও হাজারো নেতাকর্মীর আত্মত্যাগের মাধ্যমে যুবলীগ আজ দেশের সর্ববৃহৎ যুব সংগঠনে পরিণত হয়েছে।

এর প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান ছিলেন শেখ ফজলুল হক মনি, যিনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে নিহত হন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বাংলাদেশ যুবলীগ। স্বৈরাচার এরশারবিরোধী আন্দোলনে সাহসী ভূমিকা রাখে এই যুব সংগঠনটি।

২০১২ সালের ১৪ জুলাই বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ষষ্ঠ জাতীয় কংগ্রেসে চেয়ারম্যান পদে ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. হারুনুর রশিদ নির্বাচিত হন। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ এক বিবৃতিতে বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে দেশ পুনর্গঠনসহ ইতিহাস অর্পিত সকল দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে পালন করে আসছে যুবলীগ।

তারা বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের পাঁচ বছরের অপরাজনীতি, দুঃশাসন, দুর্নীতি ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রাজপথের লড়াই আন্দোলন এবং ১/১১ পরবর্তী অসাংবিধানিক সরকার কর্তৃক শেখ হাসিনাকে রাজনীতি থেকে মাইনাস এবং দেশকে বিরাজনীতিকরণের ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকল অত্যাচার নির্যাতনকে উপেক্ষা করে সাহসিকতাপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছে যুবলীগ। এই দীর্ঘ লড়াই-সংগ্রামে প্রাণ দিয়েছেন যুবলীগের অসংখ্য নেতা কর্মী।

তারা আরো বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের সোনালী ভবিষ্যৎ। তাই, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের অভিযাত্রায় অতীতের গৌরবময় ভুমিকার মতোই দায়িত্বশীল ভুমিকা পালনে যুবলীগ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এদিকে, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে কেন্দ্রীয় যুবলীগ। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৮টায় ধানমন্ডি বঙ্গবন্ধু জাদুঘরের সামনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ এবং সকাল সাড়ে ৮টায় বনানী কবরস্থানে শহীদ শেখ ফজলুল হক মণির কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ।




Leave a Reply

Your email address will not be published.