Search
Sunday 22 May 2022
  • :
  • :

‘ভারতে ডাল-পেঁয়াজের দাম বাড়ায় গোবর এবং গো-মূত্র খাওয়ার পরামর্শ’

‘ভারতে ডাল-পেঁয়াজের দাম বাড়ায় গোবর এবং গো-মূত্র খাওয়ার পরামর্শ’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে ডাল এবং পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় গোবর এবং গো-মূত্র খাওয়ার অভিনব পরামর্শ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি মার্কন্ডেয় কাটজু।

মঙ্গলবার তিনি এ বিষয়ে টুইটারে সরকারের উদ্দেশ্যে খোঁচা দিয়ে বলেছেন, ‘প্রণাম। আজ থেকে গো-মূত্র পান করুন এবং গোবর খান। এসব ওষুধপত্র। ডাল এবং পেঁয়াজ খুব ব্যয়বহুল হয়ে গেছে।’

প্রথম টুইটে এভাবে সরকার এবং অন্যদের কটাক্ষ করার পরে দ্বিতীয় টুইটে আরো চাঞ্চল্যকর এবং অর্থবোধক টুইট করেছেন কাটজু। তিনি বলেছেন, ‘গরুর গোশত খাওয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, গরুর গোবর খাওয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা নেই। এ জন্য আশা করছি যদি আমি গোবর খাওয়া শুরু করি তাহলে কেউ আমাকে পিটিয়ে হত্যা করবে না।’

মার্কন্ডেয় কাটজুর এ ধরণের মন্তব্য এমন সময় এল যখন  বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পক্ষ থেকে গরুর প্রস্রাব এবং গোবরের বিজ্ঞানভিত্তিক সুফলের দাবি করে একটি পুস্তিকা প্রকাশ করা হয়েছে। পুস্তিকায় দাবি করা হয়েছে গরুর প্রস্রাব ক্যান্সার প্রতিরোধ করার পাশাপাশি হাঁপানি, জন্ডিস এবং রক্তাল্পতা দূর করতে কার্যকর।

সংবাদে প্রকাশ, কাটজু একটি ইংরেজি ওয়েবসাইটের খবরের লিঙ্ক শেয়ার করেন। এতে লেখা ছিল হিন্দুরা মনে করে গো-মূত্র পান করলে ক্যান্সার দূর হয়ে যায়। লিঙ্কটি শেয়ার করে কাটজু লেখেন, ‘পান করতে থাকুন, পান করতে থাকুন।’ পরবর্তীতে তিনি মন্তব্য করেন, আমি মনে করি গো-মূত্র রোগ দূর করে দেয়। ডাল এবং পেঁয়াজে ব্যয় বহুল হয়ে যাওয়ায় গোবর ভাল বিকল্প হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ভারতে ডালের দাম আকাশছোঁয়া হয়ে যাওয়ায় তা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এক নাগাড়ে সমালোচনা করছে বিরোধীরা। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এরইমধ্যে ৩ হাজার টন ডাল আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মার্কন্ডেয় কাটজু এর আগে গরুর গোশত নিয়ে মিথ্যা অপবাদ রটিয়ে উত্তর প্রদেশের দাদরিতে মুহাম্মদ আখলাখকে পিটিয়ে হত্যা করার পরে কড়া মন্তব্য করে বলেন, ‘আমি গরুর গোশত খাই এবং তা খেতে থাকব দেখি আমাকে কে বাধা দিতে পারে।’ তিনি গরুকে মা আখ্যা দেয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘গরু একটি পশু তা মানুষের মা হয় কি করে? এটা ফালতু কথা বলেও মন্তব্য করেন কাটজু। সূত্র : আইআরআইবি




Leave a Reply

Your email address will not be published.