ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর : ২৫ সেপ্টেম্বর ঈদুল আজহা। নাড়ীর টানে প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ করতে রাজধানী ছাড়ছে মানুষ। ঘরমুখে মানুষের চাপে যানবাহনগুলোতো উপচে পড়া ভিড়। ঈদের ছুটির আগে শেষ কর্মদিবস আজ (বুধবার)।

বুধবার অফিস শেষে সরকারি ছুটি শুরু হলেও অনেকেই অফিসে হাজিরা দিয়েই রওয়ানা হতে শুরু করেছেন নিজ এলাকায়। আজকের মধ্যেই ফাঁকা হয়ে যাবে রাজধানী ঢাকা।

বিশেষকরে বিকালে অফিস ছুটির পর থেকেই শুরু হবে ট্রেন, বাস, লঞ্চে ঈদে ঘরমুখো মানুষের চাপ। পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপনে বাড়ির পথে রওয়ানা হয়েছেন অনেকেই। যাত্রীরা সময়মতো লঞ্চ পেলেও বাস এবং ট্রেন যাত্রায় আছে সামান্য বিলম্ব।

পরিবার-পরিজনদের সঙ্গে ঈদ করতে কেউ কেউ সকাল থেকে আবার কেউ বা দুপুরে অনেকটা আগেভাগেই কাজ-কর্ম শেষ করে গন্তব্যের পথে ঢাকা ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন।

সকাল থেকেই শুরু হয়েছে বাস টার্মিনাল, লঞ্চ ঘাট আর রেল স্টেশনে মানুষের হুড়োহুড়ি। ঢাকার সদরঘাট, রেল স্টেশন আর গাবতলী বাস টার্মিনালে প্রায় একই চিত্র দেখা গেছে।

সকালে কমলাপুর রেল স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, গন্তব্যে যেতে মানুষের ঢল। পরিবারের অনেকেই ঢাকা ছাড়ছেন স্ত্রী-সন্তানসহ।

রেল স্টেশনে চট্টগ্রামগামী রতন বলেন, অনেক কষ্ট করে টিকিট সংগ্রহ করেছি। ঈদের দুই দিন আগে ঢাকা ছাড়ছি। পরিবারের সঙ্গে ঈদ করব, ভালো লাগছে।

সকাল গড়িয়ে দুপুর পার হলেই মানুষের চাপ আরও বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। অফিস শেষে কিংবা কেউ কিছু সময় আগে কাজ সেরে অনেকেই রওনা হবে গন্তব্যের দিকে।

পোশাক কারখানাগুলো পর্যায়ক্রমে কর্মীদের ছুটি দেওয়ায় মঙ্গলবার থেকেই ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন কর্মজীবীরা। আর ঈদের আগে যারা ছুটি নিয়েছেন তারা অবশ্য দুই একদিন আগে থেকেই বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন।

সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে দুপুরে কথা হয় সোহান আলীর সঙ্গে। তিনি বলেন, চাঁদপুর যাচ্ছি। অফিস থেকে ঈদের আগে একদিন ছুটি নিয়েছি। পরিবারের সঙ্গে ঈদ কাটিয়ে ফিরব।

বিআইডব্লিউটিএর এক পরিবহন কর্মকর্তা জানান, ভোরে খুব ভিড় থাকলেও সকালে তা কমে আসে। বিকালের দিকে ভিড় বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

গাবতলী বাস টার্মিনালে ভিড়ের একই চিত্র দেখা যায়। স্বজনদের নিয়ে দূরবর্তী অঞ্চলে বাড়িতে ঈদ করতে যাচ্ছেন অনেকেই। সকালের দিকে ভিড় বেশি থাকলেও দুপুরের দিকে তা কিছুটা কমেছে। তবে তা বিকাল হলেই বাড়বে বলে জানালেন একটি বাস কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা সোহেল।

গাবতলীতে আগে থেকে যারা টিকিট সংগ্রহ করতে পেরেছেন তারা যাচ্ছেন নির্দিষ্ট বাসে। তবে এরই মাঝে যারা টিকিট পাননি এমন অনেকেও আছেন। তারা যাচ্ছেন লোকাল বাসে।

যশোরে যাওয়ার জন্য বাস টার্মিনালে এসেছেন কবির হোসেন। তিনি বলেন, টিকিট পাইনি। তাই লোকাল বাসে পাটুরিয়া ঘাট তারপর ওই পাড় থেকে আবার যশোর যাব।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *