Search
Sunday 8 December 2019
  • :
  • :

পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৭, আহত ৫০

পাবনায় দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৭, আহত ৫০

পাবনা, ২৯ অক্টোবর : ঢাকা-পাবনা মহাসড়কে সাঁথিয়া উপজেলার বহলবাড়িয়া নামক স্থানে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৭ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৫০ জন। রবিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ঘটনায় নিহত ৫ জনের নাম পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন সাঁথিয়ার বৃহস্পতিপুর গ্রামের মকবুলের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৩৭), পাবনা সদরের ভাঙাবাড়িয়ার সোবাহানের ছেলে লিটন (৪০), সুমি ট্যাভেলসের ড্রাইভার রিপন (৫০), গাজীপুর সদর উপজেলার মৃত গফুরের ছেলে আয়েত আলী বিশ্বাস (৬০) ও কাওসার (৩৮)।

পাবনার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, পাবনা থেকে সুমী পরিবহনের যাত্রীবাহি একটি বাস কাশিনাথপুরের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে সাঁথিয়া উপজেলার বহলবাড়িয়া নামক স্থানে বিপরীত দিক থেকে আসা শাহ-নকিব পরিবহনের যাত্রীবাহি অপর একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ৫ জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও ২ যাত্রী নিহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের লাশ উদ্ধার এবং আহতদের উদ্ধার করে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। দুর্ঘটনার পর মহাসড়কের দুই পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ দুর্ঘটনা কবলিত বাস দুটিকে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিলে এক ঘণ্টা পর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

প্রত্যেক্ষদশীরা জানান, সকালে কাজিরহাট থেকে পাবনাগামী নকীব পরিবহন এবং পাবনা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা সুমি পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বহলবাড়িয়া নামকস্থানে দুটি বাসের মুখোমুখি এ সংঘর্ষ ঘটে। এতে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা এ দুর্ঘটনায় হতাহতের উদ্ধার করে। আহতদের পাবনা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হ্সাপাতালে পাঠানো হয়।

আতাইকুলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদ রানা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তবে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলেও তিনি জানান।