স্পোর্টস ডেস্ক, ২৭ সেপ্টেম্বর : ক্রিকেটের বিস্ময় বালক বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম খেলোয়াড় সাতক্ষীরা সুপারম্যান মুস্তাফিজ নিজ গ্রামের বাড়ি  তারালিতে পবিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদ করতে পেরে বেশ আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত। গত ঈদে বাড়িতে আসতে না পারলেও কোরবানির ঈদে বাড়িতে ফিরেছেন বেশ কয়দিন আগেই।

মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে ঈদ করতে ঢাকা থেকে ছোট বোন সালেহা, খুলনা থেকে বড় বোন সাবেরা ও বড় ভাই মাহফুজার রহমানসহ অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন চলে আসেন তাদের সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের নিজ বাড়িতে। ঈদে বাড়ির ছোট ছেলে তারকা খেলোয়াড় মুস্তাফিজকে পেয়ে আনন্দিত পরিবারের সকলে, আনন্দিত তেঁতুলিয়া গ্রামের মানুষ এবং হাজারো ভক্ত।

মুস্তাফিজের বাবা আবুল কাশেম গাজী বললেন, বাড়ির ছোট ছেলে না থাকলে বাড়ি ফাঁকা লাগে। এবারের ঈদ সকলের বেশ ভালো কেটেছে। ঈদ উল ফিতরে তাকে না পেয়ে অনেক খারপ লেগেছিল সকলের।

মুস্তাফিজের বড় ভাই মাহফুজার রহমান জানালেন, গত ঈদে ছোট ভাই মুস্তাফিজ ঢাকায় খেলা থাকার কারণে আসতে পারেনি এজন্য বেশ মন খারাপ হয়েছিল। এই ঈদ সেই আনন্দের ঘাটতি পুষিয়ে নিয়েছি। এবার ঈদে ছোট ভাই মুস্তাফিজকে বাড়িতে পেয়ে আমাদের অনেক ভালো কেটেছে। পরিবারের সবাই মিলে ঈদ উদযাপন করলাম।

মুস্তাফিজ জানালেন, এবার ঈদে ছুটি পেয়ে আর দেরি করিনি। পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে পেরে আনন্দিত হয়েছি। ঈদের দিন শুক্রবার তেঁতুলিয়া পূর্বপাড়া জামে মসজিদ ঈদগাহে সকাল ৮টায় ঈদের নামাজ পড়ি। পরে পরিবারের সঙ্গে থেকে পশু কোরবানী করতে পেরে অনেক ভালো লাগছে। এরপর পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব, শিশু-কিশোর, ভক্তসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষের সঙ্গে নিজ বাড়িতে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন তিনি। বন্ধুদের সঙ্গে মোটর বাইকে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরেছি। মুস্তাফিজ জানালেন, ঈদে বাড়ি না আসলে জানাই হতো না এলাকার মানুষের ভালবাসার কথা। যতদিন বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে খেলবো ততদিন সেরা খেলাটা দেশবাসীকে উপহার দেওয়ার চেষ্টা করবো।

ক্রিকেটার মুস্তাফিজের সেজ ভাই মোখলেছুর রহমান পল্টু জানান, ঈদ উদযাপন করতে ২১ সেপ্টেম্বর রাত ১১টায় খুলনা থেকে সাতক্ষীরায় এসে পৌঁছায় মুস্তাফিজ। ঈদে মুস্তাফিজকে কাছে পেয়ে বন্ধু ও ভক্তরা বেশ আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *