Search
Tuesday 17 May 2022
  • :
  • :

পরামর্শদের দেশে আরো ভয়াবহ ঘটনা ঘটছে : মেনন

পরামর্শদের দেশে আরো ভয়াবহ ঘটনা ঘটছে : মেনন

ঢাকা, ১৭ অক্টোবর : বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দু’ফোটা পানিতে যেমন কখনও বৃষ্টি বোঝায় না, তেমনি বিদেশি নাগরিক হত্যায় বাংলাদেশে জঙ্গির উত্থান হয়েছে বলে প্রমাণিত হয় না। দুইজন বিদেশি নিহতের পর এদেশে পর্যটনসহ বিভিন্ন বিষয়ে যারা উপদেশ ও পরামর্শ দিচ্ছেন, তাদের দেশে আরো ভয়াবহ ঘটনা ঘটছে। কিন্তু তাদের পরামর্শ দেওয়ার কেউ নেই।

আজ শনিবার সকালে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ঢাকা মহানগর আয়োজিত জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘টেকসই উন্নয়নে পরিবেশ ও পর্যটনের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রাবন্ধিক জিয়াউল হক হাওলাদার।

মন্ত্রী বলেন, দুজন বিদেশি খুন হয়েছেন এ জন্য দুঃখিত। সমাধানেরও পথেও এগোচ্ছি। কিন্তু এ জন্য বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্র ও জঙ্গি রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করাটা দুঃখজনক।

তিনি বলেন, যারা আমাদের দেশে বিদেশি নাগরিক আসতে নিষেধ করছেন তাদের দেশই অনিরাপদ। যেদিন নিরাপত্তার অযুহাত দিখিয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশে আসতে অসম্মতি প্রকাশ করে তার পরদিনই তাদের ক্রিকেট বোর্ডের সামনে দু’টি খুন হয়েছিল।

বিশ্বমহল জঙ্গিবাদের উত্থানের যে দাবি তুলছে তা অসত্য উল্লেখ করে সরকারের এই মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে গত ২০০১ সাল থেকে ২০০৫ সালে জামায়াত-বিএনপি ক্ষমতা থাকাকালীন সময়ে জঙ্গিবাদ ছিল।

পর্যটনমন্ত্রী বলেন, সমুদ্রপৃষ্টের উচ্চতা ১ মিটার বৃদ্ধি পেলে প্রায় ৩ কোটি মানুষ বিপর্যয়ের মুখে পড়বে। পরিবেশ ও পর্যটনকে টিকিয়ে রাখতে হতে হলে আমাদের একসাথে কাজ করতে হবে।

রাশেদ খান মেনন বলেন, বাংলাদেশে পর্যটন স্থানসমূহ এখন হুমকির মুখে। পর্যটন পরিবেশকে ধ্বংস করে, আর পরিবেশ না থাকলে পর্যটন থাকবে না। তাই হাতে হাত ধরে দুটোকেই চলতে হবে। পাথর ও কয়লা শিকারিদের আক্রমণে জাফলং ও লালাখাল ধ্বংস হতে চলেছে। রাতারগুলে ক্রমাগত অনেক পর্যটক আসার কারণে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। এগুলো রক্ষার জন্য পর্যটন যেমন প্রয়োজন, তেমনি সুরক্ষার ব্যবস্থাও প্রয়োজন। পর্যটন সংরক্ষণ আইন আছে, তা বাস্তবায়নের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির ঢাকা মহানগরীর সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও অংশগ্রহণ করেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক ইয়াসিন আলী, বাংলাদেশ পযর্টন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান ড. অপরুপ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সন্তোষ কুমার দেব, পর্যটন বিচিত্রার সম্পাদক মহিউদ্দিন হেলাল প্রমুখ।




Leave a Reply

Your email address will not be published.