Search
Friday 16 November 2018
  • :
  • :

নিয়ম ভেঙে অ্যান্টিবায়োটিক খেলে কী হয়?

নিয়ম ভেঙে অ্যান্টিবায়োটিক খেলে কী হয়?

ডেইলি রিপোর্ট ডেস্ক : শরীরের বিভিন্ন ধরণের অসুখে অ্যান্টিবায়োটিকই একমাত্র ভরসা। ব্যাকটেরিয়ার মাধ্যমে শরীরে কোনো সংক্রমণ হলে তার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করা হয়। তবে নিয়ম না মেনে বা চিকিৎসকদের পরামর্শ না নিয়ে অ্যান্টিবায়োটিকের খেলে কী সমস্যা হয় জেনে নিন।

অ্যান্টিবায়োটিক চলাকালে মাঝপথে ওষুধ থামানো যাবে না। অর্থাৎ মোট ১২টি ওষুধের মধ্যে ৮টি খেলেন আর ৪টি ওষুধ খেলেন না এমন করা যাবে না। নিজেকে সুস্থ মনে হলেও অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স শেষ করতে হবে। তা না-হলে পরবর্তীকালে কোনো রোগে ওই অ্যান্টিবায়োটিক কাজ করবে না।

সাধারণ সর্দি-কাশি বা ডায়েরিয়া ভাইরাস জনিত রোগ। এর জন্য অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার প্রয়োজন নেই।

নিয়ম না মেনে অল্প বয়সে বেশি অ্যান্টিবায়োটিক খেলে মোটা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করার সময় মদ্যপান করা উচিত নয়। তাতে অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যক্ষমতা কমে যায়।

গর্ভবতীদের ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ বাছাইয়ের সময় খুব সচেতন থাকতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ভাবেই ওই সময় ওষুধ খাওয়া যাবে না। কারণ, মা ও মায়ের গর্ভের ভ্রূণের উপর এর খারাপ প্রভাব পড়তে পারে।

নিয়ম ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক গর্ভনিরোধক ওষুধের কার্যক্ষমতাও কমিয়ে দিতে পারে।

ভুল ভাবে অ্যান্টিবায়োটিক খেলে ব্যাকটেরিয়া পুরোপুরি মরে না, দুর্বল হয়ে পড়ে। পরে সেই ব্যাকটেরিয়া বংশবৃদ্ধি করে। রোগী আগে যে অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে সহজেই সেরে উঠতেন সেটি আর কাজ করবে না।