চট্টগ্রাম, ৪ অক্টোবর : সম্প্রতি বাংলাদেশে দুই বিদেশি নাগরিক খুনের ঘটনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে বলে উল্লেখ করেছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট।

রবিবার সকালে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনীর যৌথ সমুদ্র মহড়ার সমাপনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন রাষ্ট্রদূত। চট্টগ্রামে স্কুল অব মেরিটাইম ওয়ারফেয়ার অ্যান্ড টেকটিসে অনুষ্ঠিত পাঁচদিনব্যাপী মহড়া শেষে এ সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে দুই বিদেশি নাগরিক হত্যার বিষয়টিকে যুক্তরাষ্ট্র খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। দেশে অবস্থানরত বিদেশি নাগরিক ও কূটনৈতিক মিশনগুলোর নিরাপত্তার ব্যাপারে সরকার যথাযথ পদক্ষেপ নেবে বলেও আশা প্রকাশ করেন বার্নিকাট।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মার্কিন রাষ্ট্রদূত দুই দেশের মধ্যে নিরাপত্তা সংক্রান্ত চুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, সাগরের যেকোনো জায়গায় দুর্যোগ বা হুমকির ক্ষেত্রে ইতিবাচক ফল পাওয়া যাবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সহকারী প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী।

এতে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা মহড়ার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এ সময় বক্তারা এই মহড়ার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে বলেন, এর ফলে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান, বাণিজ্যিক জাহাজগুলোর নিরাপত্তাসহ বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আরো বেশি নজরদারি করতে সক্ষম হবে।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টার দিকে গুলশান ২-এর ৯০ নম্বর সড়কের মাথায় অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা ইতালীয় নাগরিক তাবেলাকে গুলি করে। এরপর তাঁকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত এই ইতালীয় নাগরিক আইসিসিও নামের নেদারল্যান্ডভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠানে কমর্রত ছিলেন।

এ ঘটনার পাঁচদিনের মাথায় রংপুর সদরের মাহীগঞ্জ এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে হোসিকুমিও (Hossicomeo) নামের এক জাপানি নাগরিক নিহত হন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *