Search
Thursday 17 January 2019
  • :
  • :

কুড়িগ্রামের নদ-নদীতে পানি বাড়ছে; পানিবন্দী ২০ হাজার পরিবার

কুড়িগ্রামের নদ-নদীতে পানি বাড়ছে; পানিবন্দী ২০ হাজার পরিবার

কুড়িগ্রাম, ৬ জুলাই : কুড়িগ্রামে ধরলা, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র ও দুধকুমারসহ প্রধান নদ-নদীর পানি দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়ায় এসব নদীর অববাহিকায় ২২টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। কোনও কোনও এলাকায় ঘর-বাড়িতে পানি ঢুকেছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে অন্তত ৩০ হাজার পরিবার।

ধরলা অববাহিকার হলোখানা, ভোগডাঙা, মোঘলবাসা, বড়ভিটা, শিমুলবাড়ি, বেগমগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। দুধকুমার নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভূরুঙ্গামারী ও নাগেশ্বরী উপজেলার উপজেলার তিন ইউনিয়নের ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি হয়েছে প্রায় ২০ হাজার মানুষ। ব্রহ্মপুত্রের চর নারায়নপুর ও নুনখাওয়ার অনেক এলাকায় ঘর-বাড়ি ও ফসলি জমি নিমজ্জিত হয়েছে।

এসব এলাকার সবজি, পাট, কলাসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষেত নিমজ্জিত হয়েছে। পানি বাড়ার সাথে সাথে সদর উপজেলার সারোডাব, মোঘলবাসা, যাত্রাপুর, ভোগডাঙা, উলিপুরের থেতরাই, চিলমারীর রাণীগঞ্জসহ কয়েকটি এলাকায় দেখা দিয়েছে তীব্র ভাঙন। ফলে গত দু’দিনে ৩০টি পরিবার গৃহহীন এবং ফসলী জমি বিলীন হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্রে ৩১ ও দুধকুমারে ৩৮, ধরলায় ৩৫ ও তিস্তায় ৩৭ সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। ধরলা নদীর পানি বিপৎসীমার খুব কাছাকাছি অবস্থান করছে। কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক মোছা: সুলতানা পারভীন জানান, বন্যা মোকবিলায় সব রকমের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।
-সূত্র: কালের কণ্ঠ