Search
Thursday 12 December 2019
  • :
  • :

কাশ্মীরকে সর্বাত্মক সহায়তা দেবে পাকিস্তান

কাশ্মীরকে সর্বাত্মক সহায়তা দেবে পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ৬ আগস্ট : কাশ্মীরের জনগণকে রাজনৈতিক, কূটনৈতিকসহ সকল ধরণের সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে পাকিস্তান। ভারতের একতরফা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যেকোনো ধরণের লড়াইয়ে এ সহায়তা করা হবে বলে সোমবার (৫ আগস্ট) এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়, কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের যে সিদ্ধান্ত ভারত সরকার নিয়েছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান। ভারতের একতরফা সিদ্ধান্ত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করতে পারে না। কাশ্মীরি জনগণ ভারতের এমন সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না।

এর আগে রোববার (৪ আগস্ট) মুসলিম বিশ্বের একমাত্র পরমাণু শক্তিধর দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ভারত অপরিণামদর্শী কোনো আগ্রাসন চালালে পাকিস্তান তার উপযুক্ত জবাব দেবে।

নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর আজাদ জম্মু ও কাশ্মীরে বেসামরিক লোকজনের উপর ভারতীয় সেনাবাহিনীর গুচ্ছ গোলা নিক্ষেপের পর ইমরান জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির সঙ্গে বৈঠকে এসব কথা বলেন। বৈঠকে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খাত্তাক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরাইশি, সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া ও অন্যান্য সামরিক এবং বেসামরিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে আজাদ কাশ্মীরে অস্থিতিশীলতা বাড়াতে ভারতীয় চেষ্টার নিন্দা জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার ভারতের সংবিধানের ৩৫-ক ধারা ও ৩৭০ অনুচ্ছেদ কাশ্মীরকে যে মর্যাদা দিয়েছে তা বাতিল করেছে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার। এতে কাশ্মীরের বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা বিলুপ্ত হলো। সেই সঙ্গে একটি স্বায়ত্বশাসিত রাজ্যের মর্যাদাও হারায় কাশ্মীর।

উল্লেখ্য, ভারতীয় সংবিধানের ৩৫-ক ধারা অনুযায়ী কাশ্মীরের বাসিন্দা নয়—এমন ভারতীয়দের সম্পদের মালিক হওয়া এবং চাকরি পাওয়ায় বাধা ছিল। অনুচ্ছেদ ৩৭০ ভারতীয় রাজ্য জম্মু ও কাশ্মীরকে নিজ সংবিধান এবং আলাদা পতাকার স্বাধীনতা দিয়েছিল। এছাড়া পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত বিষয় ও যোগাযোগ বাদে সকল ক্ষেত্রে স্বাধীনতার নিশ্চয়তাও দিয়েছে ৩৭০ ধারা।