Search
Thursday 26 November 2020
  • :
  • :

করোনায় ফিলিস্তিনের প্রবীণ রাজনীতিক সায়েব এরেকাতের মৃত্যু

করোনায় ফিলিস্তিনের প্রবীণ রাজনীতিক সায়েব এরেকাতের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ১১ নভেম্বর : কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কয়েক সপ্তাহ পর ৬৫ বছর বয়সে মঙ্গলবার মারা গেছেন ফিলিস্তিনি প্রবীণ আলোচক ও রাজনীতিবিদ সায়েব এরেকাত। তিনি কয়েক দশক ধরে বিশ্বশক্তির সাথে সম্পর্ক চালিয়ে গেছেন।

ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস এক বিবৃতিতে বলেন,‘মহান যোদ্ধা ডা. সায়েব এরেকাতের চলে যাওয়া এক ভাই ও বন্ধুর চলে যাওয়া যা ফিলিস্তিন ও আমাদের জনগণের জন্য বড় ক্ষতি এবং আমরা এতে গভীরভাবে দুঃখিত।’

তিনি এমন এক একাডেমিক ও লেখক যার ইংরেজির নিখুঁত কমান্ডে প্রায়শই হাস্যরস মেশানো থাকতো। এরেকাত ১৯৯১ সাল থেকে ইসরাইলের সাথে আলোচনার জন্য গঠিত প্রতিটি দলেই অংশগ্রহণ করতেন। ১৯৯৩ সালে অসলো অ্যাকর্ডে গোপন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ছিল তার।

১৯৯৬ সাল থেকে ফিলিস্তিনের সংসদ সদস্য এরাকাত ফিলিস্তিনি জাতীয় আন্দোলনের ঐতিহাসিক নেতা ইয়াসির আরাফাতের ঘনিষ্ঠ ছিলেন। তিনি ১৯৫৫ সালে জেরুসালেমে জন্মগ্রহণ করেন। চার সন্তানের জনক এরেকাত তার জীবনের বেশিরভাগ ফিলিস্তিন সঙ্কট সমাধানের জন্য উৎসর্গ করেছিলেন।

তবে দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানে দীর্ঘকাল ধরে কাজ করে অনেকটাই হতাশা অবলোকন করেছেন এরেকাত। ইসরাইলি বন্দোবস্ত নির্মাণ, বিক্ষিপ্ত সহিংসতা, শান্তি প্রচেষ্টার স্থবিরতা ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে দ্বিধা বিভাজন দেখে ক্রমশ ব্যর্থ বোধ করেন। ২০১৫ সালে, ফিলিস্তিনে অত্যধিক ছুরি, বন্দুক ও গাড়িতে হামলা বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে এরেকাত সহিংসতার জন্য ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর নীতির ওপর দোষারোপ করেন।

এসময় এএফপি’র এক প্রশ্নের জবাবে এরাকাত বলেন,‘যারা আশা ভঙ্গ করে তাদের আমি নিন্দা জানাই।’

তিনি বলেন,‘আমি শান্তির মানুষ। শান্তি স্থাপন করতে চাই। আমি ইসরাইলের অস্তিত্বের অধিকারকে স্বীকৃতি দেই।’ বাসস