ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর : প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতায় মাত্র ১৫৮ রানে অলআউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটে ভর করে লিড পেয়েছে সফরকারীরা। দ্বিতীয় দিন শেষে ৫৯ রানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল।

বৃহস্পতিবার সকালে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান লিটন দাস ৩৭* এবং সৌম্য সরকার ২৪* রান নিয়ে ব্যাটিং শুরু করবেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে বাংলাদেশ। তবে ৩০ রানে ওপেনার রনি তালুকদার (১৫) বিদায় নিলে অধিনায়ক মুমিনুল হককে নিয়ে বড় সংগ্রহের পথ দেখান আরেক ওপেনার এনামুল হক বিজয়। ৭০ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন দলীয় অধিনায়ক মুমিনুল (২২)। এরপর এনামুলের সঙ্গে জুটি বাঁধেন ফর্মে থাকা লিটন দাস।

দলীয় ১৪২ রানে দিনের শেষ ব্যাটসম্যান হিসাবে সাজঘরে ফেরেন এনামুল হক। ওয়ানডে স্টাইলে খেলা এনামুল ৮৭ বলে ৮৯ রান করেন। তার এই রানে ৮টি চার এবং ৫টি ছক্কার মার ছিল। এনামুলের বিদায়ের পর মাঠে নামেন সৌম্য সরকার। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন এই দুই ব্যাটসম্যান। আর ততক্ষণে বাংলাদেশ পৌঁছে যায় ১৮৮ রানে।

এর আগে বুধবার মহীসুরের শিখনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে আগের দিনের ১৬৩ রান নিয়ে খেলতে নেমে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান শিশির ভাভানে ও জগদীশা সুচিথ ভালো শুরু করেন। এদিন সকালে আরও ৬৪ রান যোগ করেন এই দুই ব্যাটসম্যান। তবে ১২৭ রানের এই জুটি ভাঙেন আগের দিনের সেরা বোলার শুভাগত হোম।

একই রানে পরের ওভারেই ক্রমেই ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা আরেক সেট ব্যাটসম্যান শিশির ভাভানেকে ফেরান লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৮ রান করেন ভাভানে। ১৭৫ বলে ১৩টি চার এবং ২টি ছক্কায় এই রান করেন তিনি। এছাড়া ১১৫ বলে ৫টি চারের সাহায্যে মূল্যবান ৪১ রান করেন সুচিথ। শেষ দিকে উদিত প্যাটেলের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ২৮৭ রানের বড় সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা। ৩টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৪৪ রান করেন উদিত।

বাংলাদেশের পক্ষে শুভাগত হোম ৪৫ এবং সাকলায়েন সজীব ৮৫ রানে ৪টি করে উইকেট পান। এছাড়া আল-আমিন এবং জুবায়ের ১টি করে উইকেটে নেন।

এর আগে প্রথম দিনে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৫৮ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ ‘এ’ দল।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *