Search
Thursday 19 May 2022
  • :
  • :

উয়েফার বিরুদ্ধে মামলার হুমকি বার্সেলোনার

উয়েফার বিরুদ্ধে মামলার হুমকি বার্সেলোনার

স্পোর্টস ডেস্ক : ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাব বার্সেলোনা বরাবরই বহন করে এসেছে কাতালোনিয়া জাতীয়তার পতাকা। সামপ্রতিক সময়ে বার্সা সমর্থকরা জোরেশোরে আওয়াজ তুলেছিলেন কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে। তবে দর্শকের এই আচরণ মেনে নিতে পারেনি ইউরোপিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা উয়েফা। ফলে বার্সেলোনাকে দুই দফা পড়তে হয়েছে জরিমানার মুখে।

উয়েফার এ সিদ্ধান্তে চরম ক্ষুব্ধ হয়েছেন বার্সার সভাপতি জোসেফ মারিয়া বার্তেমোউ। অন্যায়ভাবে শাস্তি আরোপের জন্য উয়েফার বিরুদ্ধে মামলা করারও হুমকি দিয়েছেন তিনি।

গত সেপ্টেম্বরে বায়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে কাতালোনিয়ার পতাকা নিয়ে মাঠে এসেছিলেন বার্সার সমর্থকরা। এ জন্য ৪০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হয়েছিল বার্সাকে। গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের সময়ও একই কারণে ৩০ হাজার ইউরো জরিমানা গুনতে হয়েছে দুবারের ট্রেবলজয়ীদের।

উয়েফার নিয়ম অনুযায়ী মাঠে ‘রাজনৈতিক, মতাদর্শিক, ধর্মীয়, আক্রমণাত্মক ও উসকানিমূলক কোনো বার্তা’ দেওয়া নিষিদ্ধ। স্বাধীন কাতালোনিয়ার দাবি তোলাকে হয়তো রাজনৈতিক দাবি হিসেবেই বিবেচনা করেছে উয়েফা। কিন্তু বার্সা সভাপতি বার্তেমোউয়ের কাছে বিষয়টি স্বাধীন মত প্রকাশের অধিকারের প্রশ্ন।

রবিবার ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভায় তিনি বলেছেন, যথেষ্ট হয়েছে। তারা আমাদের গণতন্ত্রের মৌলিক জায়গাটিকে ঝুঁকির মুখে ফেলছে। আর সেটা হলো, মত প্রকাশের স্বাধীনতা। উয়েফা বার্সাকে জরিমানা করছে একটা প্রতীক, কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার পতাকা বহনের জন্য। এটা কোনো সহিংসতার উসকানি দেয় না। এটা কোনো নিষিদ্ধ কিছুও না। এটা বার্সেলোনা সমর্থক ও কাতালানদের স্বকীয় পরিচয়ের অনুভূতি প্রকাশ করে।

উয়েফার এই নিষেধাজ্ঞা ও শাস্তি আরোপের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বার্তেমোউ বলেছেন, আমরা উয়েফার আপিল কমিটিতে যাব এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে। সেখানে যদি আমাদের আপিল গ্রহণ করা না হয়, তাহলে আমরা যাব ক্রীড়াবিষয়ক আদালতে। এমনকি সেখানেও যদি আমাদের আর্জি না শোনা হয়, তাহলে আমরা সুইজারল্যান্ডের উচ্চ আদালতে যাব। আর যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে মানবাধিকারবিষয়ক ইউরোপিয়ান আদালতেও যাব।

গত রবিবার ন্যু ক্যাম্পে এইবারের বিপক্ষে বার্সার লা লিগার ম্যাচ দেখতে এসেও মত প্রকাশের অধিকার দাবি করে স্লোগান দিয়েছিলেন বার্সেলোনার সমর্থকরা।




Leave a Reply

Your email address will not be published.