স্পোর্টস ডেস্ক, ২২ সেপ্টেম্বর : খেলা চলাকালীন ব্যাটসম্যানকে ঘুঁষি লাথি মেরে ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত হলেন বার্মুডার উইকেট কিপার জেসন অ্যান্ডারসন। বার্মুডার জার্সি গায়ে ১৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন এই ক্রিকেটার।

বার্মুডাতে একটি ঘরোয়া টুর্নামেন্টের খেলা চলছিল। ‘চ্যাম্পিয়নস অব চ্যাম্পিয়নস’, এই টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় মুখোমুখি হয়েছিল ক্লীবল্যান্ড কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব ও উইলো কাটস ক্রিকেট ক্লাব। জেসন অ্যান্ডারসন ওই ম্যাচে উইকেট কিপিং করছিলেন ক্লীবল্যান্ড কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে।

খেলা চলাকালীন একটি ওভার শেষে হঠাৎ উইলো কাটস ক্রিকেট ক্লাবের ব্যাটসম্যান জর্জ ও’ব্রায়েনকে পিছন থেকে ঘুঁষি মারেন জেসন অ্যান্ডারসন। রেগে গিয়ে ব্যাট নিয়ে অ্যান্ডারসনের দিকে তেড়ে যান জর্জও। সঙ্গে সঙ্গে দৌড়ে আসেন ফিল্ডিং দলের আরও খেলোয়াড়রা। ছুটে আসেন আম্পায়রাও। কিন্তু কিছুতেই ঝগড়া থামাতে পারেননি তারা। ধাক্কাধাক্কিতে জর্জ মাটিতে পড়ে গেলেও তার মাথায় লাথি মারতে দেখা যায় জেসন অ্যান্ডারসনকে।

অবস্থা নিয়ন্ত্রণে আনতে মাঠের সাপোর্টিং স্টাফদের ডাকেন আম্পায়র। মাঠে আসেন দুই ক্লাবের কর্তা, পুলিশ এবং অ্যাম্বুল্যান্সও। কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ থাকে খেলা।

এরপর ক্লীবল্যান্ডের সভাপতি  অ্যান্ডারসনকে মাঠ ছাড়তে বলেন। ঘটনার তদন্ত করে বার্মুডা ক্রিকেট বোর্ড লেভেল ৪ অনুযায়ী অ্যান্ডারসনকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত করার সিদ্ধান্ত নেয়। অ্যান্ডারসনের দিকে ব্যাট তাক করে মারতে গিয়েছেন জর্জও। তাই তাকেও কিছুদিনের জন্য ৫০ ওভারের ক্রিকেট থেকে নির্বাসনের কথা জানিয়েছেন বার্মুডা বোর্ড।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *